Monday, 19 March 2018

তক্বদীরের প্রতি ঈমান আনার অর্থ কি ?


আসালামু আলাইকুম ,আল্লাহর রহমতে সবাই ভালো আছেন আজ আমরা যে বিষয়ে কথা বলবো তাহল ইসলামে তক্বদীর সমন্ধে কি বলেছে তা ছোট করে হাদীছ থেকে নিয়ে  বলবো। 
তক্বদীরের প্রতি ঈমান আনার অর্থ কি ? 
এ কথার উপর দৃঢ় বিশ্বাস রাখা যে , প্রত্যেক কল্যাণ ও অকল্যাণ আল্লাহর ফায়সালা ও তার নির্ধারণ অনুযায়ীই হয়ে থাকে। তিনি যা ইচ্ছা তাই সম্পাদন করতে পারেন।  রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ) বলেছেন :
"আল্লাহ যদি আসমানের সকল অর্ধিবাসীকে এবং যমীনের সকল বসবাসকারীকে শাস্তি প্রদান করেন , তবুও তিনি তাদের পতি অত্যাচারী নন , যদি তিনি তাদের সকলের পতি করুণা করেন , তবে তাদের কর্মের চাইতে তার করুণাই তাদের জন্য উত্তম হবে।  তুমি যদি তক্বদীরের প্রতি ঈমান না রাখ। তবে উহুদ পাহাড় পরিমান স্বর্ণ আল্লাহর রাস্তায় ব্যয় করলেও তিনি তা কবূল করবেন না।  জেনে রাখো , তুমি যা পেয়েছো , তা তোমার থেকে ছুটে যাওয়ার ছিল না। আর তুমি যা পাওনি , তা তোমার ভাগ্যে ছিল না।  এই বিশ্বাসের বাইরে যদি তোমার মৃত্য হয় , তবে জাহান্নামে প্রবেশ করবে "(আহমদ ,দ্রঃছহীহ জামে ছগির -আলবানী হা /৫২৪৪)
তক্বদীরের প্রতি ঈমান চারটি বিষয়কে শামিল করে। 

  1. একথার প্রতি ঈমান আনা  যে , আল্লাহ তাআলা প্রত্যেক বস্তু সম্পর্কে (কি হবে ,কেমন করে ,কখন কোথায় সংঘটিত হবে। ....সব কিছু )সাধারণভাবে ও ব্যাপক ভাবে জ্ঞান রাখেন। 
  2. এই কথার প্রতি ঈমান রাখা যে ,আল্লাহ তা আলা উল্লেখিত বিষয়গুলো লাওহে মাহফুযে (সংরক্ষিত ফিলকে )লিখে রেখেছেন। আব্দুল্লাহ ইবনে অমর ইবনে আছ (রাঃ )থেকে বর্ণিত হয়েছে ,তিনি আমি ,আমি শুনেছি রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ) বলেছেন , "আল্লাহ তা আলা আসমান ও যামিন সৃষ্টি করার পঞ্চাশ হাজার বছর আগে সৃষ্টি জগতের তদবির লিখে রেখেছেন। "(মুসলিম)
  3. এবিশ্বাস রাখা যা,  আল্লাহর ইচ্ছা বাস্তবায়ন হবে , তা প্রতিরোধ করার কেউ নেই।  তার ক্ষমতা কে অপরাগকারী কেউ নেই। তিনি যা চাইবেন তা হবে , তিনি যা চাইবেন না তা হবে না। 
  4. এ ঈমান রাখা যে,  সমস্ত  জগৎ,সৃষ্টি কুলের আকৃতি -প্রকৃতি ও নড়া -চড়া বা কর্ম -কান্ড এসব কিছুই  আল্লাহ সৃষ্টি করেছেন।  তিনি ছাড়া যাবতীয় কিছু তারই সৃষ্টি। 
Share This
Previous Post
Next Post

Pellentesque vitae lectus in mauris sollicitudin ornare sit amet eget ligula. Donec pharetra, arcu eu consectetur semper, est nulla sodales risus, vel efficitur orci justo quis tellus. Phasellus sit amet est pharetra

0 মন্তব্য(গুলি):

thank you for comment

Read More Post